শিরোনাম

প্রকাশঃ ২০২২-১২-২৪ ১৮:২১:১১,   আপডেটঃ ২০২৩-০২-০৭ ২৩:০৩:৩৩


কুমিল্লায় টার্গেট নিয়ে বাড়ি ভাড়া, চুরি করে লাপাত্তা

কুমিল্লায় টার্গেট নিয়ে বাড়ি ভাড়া, চুরি করে লাপাত্তা

কুমিল্লা প্রতিনিধি।।

কখনও ভাড়াটিয়া, কখনও যানবাহনের যাত্রী কখনওবা অন্য ধর্মাবলম্বী সেজে চুরির অভিযোগে একটি চক্রকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৩ ডিসেম্বর) রাতে কুমিল্লার বিজয়পুর ইউনিয়নের মোহনপুর গ্রামের আবুল কালামের ভাড়া ঘর থেকে তাদের গ্রেফতার করে সদর দক্ষিণ থানা পুলিশ।


এসময় তাদের কাছ থেকে ছয়টি স্বর্ণের চেইন, একটি স্বর্ণের আংটি, নয়টি মহিলাদের শাঁখা (বালা) উদ্ধার করে পুলিশ।


গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর থানার ধর মণ্ডল গ্রামের রুক্কু মিয়ার মেয়ে জুয়েনা বেগম ওরপে জুনি(২৫), কোহিনুর বেগম(৩০)ও রিনা বেগম (৩২), মৃত জহির মিয়ার মেয়ে রুনা বেগম(২৫), দুখু মিয়ার মেয়ে রোজিনা বেগম(৩০), ইউনুছ মিয়ার মেয়ে আকলিমা বেগম(২৮)।


তাদের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবশিষ চৌধুরী। তিনি জানিয়েছেন, আমরা খবর নিয়ে জানতে পেরেছি এই চক্রের প্রত্যেক সদস্যের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের বিভিন্ন থানায় ৫ থেকে ৭ টি মামলা রয়েছে। তারা ধরা পড়লে মামলা হয়। এরপর জেলে যায়। সেখান থেকে বের হয়ে আবারও একই অপরাধে লিপ্ত হয়। 


তাদের কাছ থেকেই জানতে পেরেছি, তারা নিজ এলাকা থেকে এসে মাহফিল, মেলা, সমাবেশ, পূজা, বিয়ের অনুষ্ঠান, সুন্নতে খাতনার অনুষ্ঠানসহ জনবহুল এলাকায় পূর্বে থেকে বাসা ভাড়া নেয়। সেখানে তারা, খড়, চাঁটাই অথবা পত্রিকা বিচিয়ে রাত পার করে। সেখানে থেকে নিজের চুরির লক্ষ্য ঠিক করে। পরে তারা ছয়জন মিলে জনবহুল ওই স্থানে গিয়ে টার্গেটকে ঘিরে ফেলে। কিছু না বুঝে উঠার আগেই চুরি করে লাফাত্তা হয়ে যায়। আর ওই বাসায় ফেরেনা। তারা যানবাহনে যাত্রীবেশে গিয়ে মহিলা যাত্রীদের কাছ থেকেও স্বর্ণালঙ্কার চুরি করে। পরে তা অন্যত্র বিক্রি করে।


ওসি দেবাশীষ আরও জানিয়েছেন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের আটক করা হয়। আটকের পর তারা নিজেদের ঘরে রাখা স্বর্ণালংকার পুলিশকে দেখিয়ে দেয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং আদালতে সোপর্দ করা হচ্ছে।



www.a2sys.co

আরো পড়ুন