শিরোনাম

প্রকাশঃ ২০২১-০৮-০৩ ১৮:০৩:০২,   আপডেটঃ ২০২১-০৯-২৪ ২৩:২১:২২


চান্দিনায় ভাসুরের বিরুদ্ধে বিধবা নারীর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান দখলের অভিযোগ, প্রাণনাশের হুমকি

চান্দিনায় ভাসুরের বিরুদ্ধে বিধবা নারীর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান দখলের অভিযোগ, প্রাণনাশের হুমকি

নিজস্ব প্রতিবেদক

কুমিল্লার চান্দিনায় ভাসুরের বিরুদ্ধে বিধবা নারীর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ উঠেছে। দখলকৃত দোকান উদ্ধারের চেষ্টায় অভিযুক্ত ভাসুরের প্রাণনাশের হুমকি প্রদানে ওই বিধবা নারী এবং তার এতিম শিশু ছেলেকে নিয়ে জীবনের নিরাপত্তায় শঙ্কা বোধ করছেন। 

বিধবা নারী ফারজানা রহমান চান্দিনা উপজেলার কান্দিয়ারা গ্রামের মৃত মশিউর রহমানের স্ত্রী। বর্তমানের তিনি চান্দিনা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের স্থায়ী বসিন্দা। 

ফারহানা রহমান জানান, চান্দিনা বাজারে (হোল্ডিং নং- ০৫৮৮) নিজস্ব সম্পত্তির উপর মেসার্স জয়নাল আবেদীন নামে তার স্বামীর একটি হার্ডওয়্যারের দোকান রয়েছে। দোকানটির পুঁজি ছিলো একেবারে ব্যাংক লোনের উপর। ব্যাংক লোনের লাখ লাখ টাকা বাকি রেখে স্বামী মশিউর রহমান গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বিভিন্ন অর্থিক দ্ব›দ্বকে ঘিরে রহস্যজনকভাবে মারা যান। ওই একই সময় স্বামীর মৃত্যুর শোক এবং নানা সদস্যকে ঘিরে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। রেখে যান এক শিশু ছেলে সন্তান। স্বামী মশিউর রহমানের মৃত্যুতে ওয়ারিশ হিসেবে এতিম শিশু ছেলে মোহাম্মদ আবদুল্লাহ (৮) এবং তিনি বিদ্যমান রয়েছেন। 

স্বামীর মৃত্যুর পর দোকানের ব্যাংক লোন পরিশোধ এবং পরিবারের খরচ বাবদ মাসে ২০ হাজার টাকা দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে পরিবারের সদস্যরা মিলে জোরপূর্বক দোকানটি দখলে নেন ভাসুর মহসিন সরকার। অভিযুক্ত মহসিন সরকার চান্দিনা উপজেলার কান্দিয়ারা গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের বড় ছেলে। 

ফারহানার অভিযোগ, ভাসুর মহসিন সরকার তার দোকানটি দখলে নেওয়ার পর থেকে ব্যাংক লোনের কোন বাকি টাকা পরিশোধ করেনি। ব্যাংক পর পর তিনমাস টাকা পরিশোধের নোটিশ দিয়ে পরবর্তীতে তার স্বামীর ব্যাংক ডিপোজিট ভেঙ্গে ৭ লাখ টাকা নিয়ে নেয়। এমন পরিস্থিতিতে তিনি দোকান ফিরিয়ে নিতে আদালতের মাধ্যমে উকিল নোটিশ করলে ভাসুর মহসিন তাকে প্রাণানাশের হুমকি দেয়। এছাড়া গত ২৭ জুলাই রাতে তার শিশু ছেলে এবং তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে দরজায় তালা লিগেয়ে দেয়। সিসি টিভিতে দেখে পুলিশকে জানানো হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। বর্তমানে শিশু ছেলেকে নিয়ে বিধবা নারী ফারহানা রহমান জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা বোধ করছেন।     

বিধবা নারীর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান দখলের বিষয়ে স্বামী মৃত মশিউর রহমানের মামা মনিরুজ্জামান জানান, এটি পারিবারিক বিরোধ। একাধিকবার বসে সমাধানের চেষ্টা করেছেন তারা। কিন্তু অভিযুক্ত ভাসুর মহসিন সরকারি দোকান ছাড়তে রাজি হচ্ছেন না। যার কারণে সামধানের পথ বন্ধ হয়েছে আছে।

বিষয়টি নিয়ে অভিযুক্ত মহসিনের সঙ্গে কথা বলা এবং তার বক্তব্য শুনতে একাধিকবার চেষ্টা করা হয়েছে। 

চান্দিনা থানার ওসি সামসউদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াছ বলেন, জায়গা সম্পত্তির বিষয়গুলো সমাজ এবং আদালত ছাড়া থানা পুলিশ সমাধান করতে পারেন না। ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান নিয়ে দুই পরিবারের সঙ্গে বিরোধ নিয়ে অভিযুক্ত মহসিন বিধবা নারীর দরজায় তালা লাগানোর অভিযোগ উঠেছে। সেই সূত্রে বলেছি এলাকাবাসী মিলে সমস্যাটি সমাধানের জন্য বসলে আমরাও উপস্থিত থাকবো এবং বিধবা নারীকে সর্বাত্বক সহযোগিতা করা হবে।     



www.a2sys.co

আরো পড়ুন